বিজয় দিনের ‍শপদ
২ মার্চ, ২০১১ ৪:৫১ পূর্বাহ্ণ
-

বিজয় দিন আসলেই আমরা আনন্দে মেতে উঠি। অনেক রক্ত ও ত্যাগের বিনেময়ের এই বিজয় দিবস। এই দিনে আমরা আমাদের দেশকে চিহিৃত করেছি বিশ্বের মানেচিত্রে, অনেক ত্যাগের বিনিময়ে আমরা অর্জন করেছি এই বিজয়। এই বিজয়ে আমরা গর্বিত ও আনন্দিত।

প্রতি বছর বিজয় দিবসেই আমরা অঙ্গিকার করি সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার। এতটা বছরান্ত আমরা কি পেরেছি। আমাদের আকাংক্ষিত বাংলাদেশ গড়তে? একটা সুন্দর বাংলাদেশ যেখানে মানুষ সুন্দরভাবে জীবনযাপন করবে? মানুষ মানুষকে ভালবাসবে, সবার সবার প্রতি শ্রদ্ধা থাকবে, মানুষের মধ্যকার ভেদাভেদ দূর হবে। শোষন,বঞ্জনা,নিপীড়ন দূর হবে। এক কথায় এর জবাব:“না”। আমাদের জীবন চেতনার কিছুটা পরির্বতন হয়েছে; আমাদের দেশ স্বাধীন হয়েছে; কিন্তু আমরা আজও পরাধীন তাদের কাছে যারা এদেশেরই সন্তান। এককথায় বলতে গেলে ‘শোষকদের’ কাছে । আমাদের মুক্তি এসেছে পশ্চিমা শোষকদের থেকে; কিন্তু আজও আমরা মুক্ত করতে পারিনি আমাদের দেশীয় শোষকদের কাছ থেকে।
আমরা শোষিত হচ্ছি প্রতি পদে পদে, প্রতি ক্ষেত্রে, প্রতিটা স্তরে। শোষন শুরু হয় সেই পরিবারতন্ত থেকে এবং তা আর শেষ হয়না। শোষনের ছোবল ক্ষুদ্র পাড়াগাও থেকে সমগ্র দেশময়। যখন যে সুযোগ পাচ্ছে সেই শোষন করেছে।
আমরা সেই লৌহ মানব! আমরা মুক্ত করেছি আমাদের দেশকে অনেক রক্তের বিনিময়ে। আমরা কি পারিনা এই শোষকদের কাছথেকে আমাদের মুক্ত করতে? অবশ্যই পারি এবং পারব। আমাদের আবার একটা লড়াই প্রয়োজন। সেই লড়াই রক্ত ঝরার লড়াই না । সে লড়াই সত্য ও ভালবাসার লড়াই। আমরা ভালবাসব একে অপরকে । আমরা চেষ্টা করবো ভালবেসে এর পরিবর্তন আনতে। আমি মনে করি আমাদের ভালাবাসার জয় হবে। কিছু মানুষ নামের অমানুষদের পরিবর্তন কখনই আসবে না; কিন্তু তারা নগন্যতম হবে এবং তাদের আর কিছু করণীয় থাকবে না। আমাদের বিজয় হবে। আমরা সত্য, ভালবাসা দিয়ে শান্তির প্রতিষ্ঠা করবো। এটাই হোক আমাদের শপদ ।
--
পাঠকের মন্তব্য