নির্মমভাবে হত্যা করল মারুফকে।
৯ মার্চ, ২০১১ ২:১২ পূর্বাহ্ণ

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার ইছাপুরা গ্রামে মো. মারুফ নামের ১ শিশুকে চোখ উঠানোর পর শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে স্থানীয় লোকজন সেলিম ও ফজু নামের ২ যুবককে আটকের পর পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

পুলিশ সূত্রে মতে, ইছাপুরা গ্রামের মামুন শেখের ছেলে মারুফ গত বৃহস্পতিবার দুপুর থেকে নিখোঁজ ছিল। গতকাল শুক্রবার সকালে বাড়ির পাশে ১টি ডোবার মধ্য থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ গতকাল বিকেলে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) এহসানুল করিম সাংবাদিকদের জানান, শিশুটির ডান চোখ সম্পূর্ণ উঠানো হয়েছে, বাঁ চোখের ওপরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। গলায় দড়ি দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে তাকে হত্যা করা হয়েছে। শিশুটির বাবা মামুন শেখের বাড়ি একই উপজেলার টেঙ্গুরিপাড়া গ্রামে। স্থানীয় এক ব্যক্তির গাড়ি চালান তিনি। তিনি ইছাপুরা গ্রামে ভাড়া থাকেন। মামুন শেখ জানান, তাঁর সঙ্গে কারও শত্রুতা নেই, যার জের ধরে কেউ তাঁর ছেলেকে এমন নির্মমভাবে হত্যা করতে পারে। তবে সেলিম ও ফজু এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকতে পারেন। সপ্তাহ দুয়েক আগে ওই দুই যুবক তাঁর বাড়ির পাশে একটি বাড়ি ভাড়া নেন। ওই বাড়িতে অনেক অপরিচিত লোকজন আসত। সিরাজদিখান থানার কর্তৃপক্ষ জানান, সেলিম ও ফজুর বিরুদ্ধে মামলা করেছেন শিশুটির বাবা মামুন শেখ। আটককৃতরা শিশুটির পাশের বাসার ভাড়াটে। ধারণা করা হচ্ছে, শিশুটি তাঁদের কোনো অনৈতিক কাজ দেখে ফেলায় তাকে হত্যা করা হয়েছে।

Reuters: -
পাঠকের মন্তব্য