কম্পিউটার সিটির (২০১২-১৩-১৪) মেয়াদকালেরনবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের সংবর্ধনা প্রদান
৯ জুলাই, ২০১২ ৫:১৮ অপরাহ্ণ
-

গত ০৭ জুলাই, ২০১২ বিকাল ৫ টায় বিসিএস কম্পিউটার সিটির ২০১২-১৩-১৪ মেয়াদকালের নব-নির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি ।

নির্বাচন পরবর্তী বিজয়ের আনন্দ সকলের সাথে উপভোগ করা, আইসিটি’র উন্নয়ন ও প্রসারলাভ তথা ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ‘ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বিসিএস এবং বিসিএস কম্পিউটার সিটি একাত্ম হয়ে কর্মকা- পরিচালনার্থে উদ্যোগ গ্রহণ ও মতবিনিময়ের জন্য  বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির কার্যালয়ে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এই আয়োজনে বিসিএস কম্পিউটার সিটির ২০১২-১৩-১৪ মেয়াদকালের নব-নির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ এবং বিসিএস কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিসিএসের মহাসচিব মো: শাহিদ-উল-মুনীরের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে বিসিএস-এর পক্ষ থেকে কম্পিউটার সিটির নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যদেরকে ফুলের তোড়া এবং উপহার দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। 

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বিসিএস-এর মহাসচিব মো: শাহিদ-উল-মুনীরে। তিনি তার বক্তব্যে বিসিএস এবং বিসিএস কম্পিউটার সিটির এরকম একটি মিলনমেলাকে স্বাগত জানান এবং নব নির্বাচিত কমিটিকে বিসিএস-এর পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানান।

তিনি বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির গতিধারাকে আরও শক্তিশালী কাঠামোতে উপস্থাপন করার জন্যই বিসিএস এই শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে নিয়ে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। যে কোন প্রকার উন্নয়ন ও সাহায্য সহযোগিতার জন্য বিসিএস এবং বিসিএস কম্পিউটার সিটি একযোগে কাজ করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

বিসিএস কম্পিউটার সিটির সভাপতি মজিবুর রহমান স্বপন তার অনুভূতি ব্যক্ত করে বক্তব্য রাখেন। তিনি তার বক্তব্যে বিসিএসকে কৃতজ্ঞতা জানান এ সংবর্ধনা আয়োজনের জন্য। তিনি আশা প্রকাশ করেন অতীতের মতো বিসিএস কম্পিউটার সিটির সকল কাজে বিসিএসের পূর্ণ সহযোগিতা পাবে এবং বিসিএসের সকল কাজে বিসিএস কম্পিউটার সিটি তার সামর্থ্য দিয়ে পাশে থাকবে।

এরপর বিসিএসের সহ-সভাপতি মো: মইনুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ মো: জাবেদুর রহমান শাহীন, পরিচালক  মোস্তাফা জব্বার এবং এ.টি. শফিক উদ্দিন আহমেদ বক্তব্যে রাখেন। তাঁরা বিসিএস কম্পিউটার সিটিকে দেশের তথ্যপ্রযুক্তি বিপণনের একটি অন্যতম স্থান এবং বিসিএস এর সহযোগী হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির চলমান ধারাকে আরও বেগবান করতে বিসিএস এবং  বিসিএস কম্পিউটার সিটির এক সাথে কাজ করবে। শুধু তাই নয় তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়ন ও সম্প্রসারণের যে কোন উদ্যোগকে বাস্তবায়নের জন্য বিসিএস সর্বাত্তক সহযোগিতা করবে।

বিসিএস কম্পিউটার সিটির পক্ষে বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি মাজহারুল ইমাম সিনহা, সাধারণ সম্পাদক  এ.এস.এম আব্দুল মুক্তাদির, যুগ্ম সম্পাদক এ.কে.এম কামরুজ্জামান, কোষাধ্যক্ষ মো: মনজুরুল হক, প্রচার, প্রকাশনা ও গণসংযোগ সম্পাদক মো: রফিকুল ইসলাম, আইটি সম্পাদক এ.কে.এম আতিকুর রশিদ, সাংস্কৃতিক ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক মো: আল মামুন খান, কার্যনির্বাহী সদস্যবৃন্দ আক্তার হোসেন খান, নাজমুল আলম ভূঁইয়া জুয়েল, মো: রফিকুল আলম, মো: জাহেদুল আলম এবং মো: জিয়াউল হাসান সিদ্দীকি।

বক্তারা বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতিকে দেশের তথ্যপ্রযুক্তির জাতীয় সংগঠন হিসেবে উল্লেখ করে এরকম একটি জাঁকজমকপূর্ণ সংবর্ধনা অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তাঁরা তাদের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বিসিএসকে সহযোগিতা করার আশা ব্যক্ত করার পাশাপাশি দেশব্যাপী তথ্যপ্রযুক্তির বিকাশে বিসিএসের সাথে ভূমিকা রাখবেন বলে জানান। বিসিএস কম্পিউটার সিটির পক্ষ থেকে নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতিকে শুভেচ্ছা স্মারক উপহার দেন।  

অনুষ্ঠানের শেষে বিসিএস সভাপতি মো: ফয়েজউল্যাহ খান সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের উদ্দেশ্যে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করে তার বক্তব্য রাখেন। তিনি এ অনুষ্ঠানকে একটি স্বরণীয় মুহূর্ত আখ্যায়িত করে বলেন যে, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি দেশের আইসিটি সংশ্লিষ্ট সকল সংগঠনকে নিয়ে একযোগে কাজ করতে চায় এবং আইটি শিল্পকে প্রসারিত করার জন্য সকলকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।

পাঠকের মন্তব্য