মুদ্রানীতির দিকে চোখ বিনিয়োগকারীদের
১৭ জুলাই, ২০১২ ১:৪২ অপরাহ্ণ

মুদ্রানীতির ঘোষণাকে কেন্দ্র করে নানামুখী গুজব ও শঙ্কা কাজ করছে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে। মুদ্রানীতির ঘোষণা আসার খবরে অস্থিরতাও রয়েছে সূচকের মধ্যে। ফলে সবাই বাংলাদেশ ব্যাংকের ঘোষণার অপেক্ষায় রয়েছেন। এতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সূচক আবারো ৪ হাজার পয়েন্টের নিচে এবং লেনদেন কমে হয়েছে ১৩৮ কোটি টাকা। এদিকে প্রতিদিনের মতো গতকালও বিনিয়োগকারীরা লেনদেন শেষে ডিএসইর সামনে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। জানা গেছে, আগামীকাল বাংলাদেশ ব্যাংক মুদ্রানীতি ঘোষণা করছে। বাজারে তারল্য সঙ্কট চলমান রয়েছে। এ অবস্থায় মুদ্রানীতির ওপর নির্ভর করছে এ সঙ্কটের স্থায়িত্ব। কিন্তু এরই মধ্যে মুদ্রাস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে আনতে আবারো তারল্য সরবরাহের লাগাম টেনে ধরা হতে পারে অপেক্ষমান মুদ্রানীতিতে। এতে শেয়ারবাজারের ওপর বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাবের আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। ফলে ঘোষণার আগেই বাজারে অস্থিরতা দেখা যাচ্ছে। সাধারণ বিনিয়োগকারীরাও ঘোষণার দিকে তাকিয়ে আছেন। এতে প্রতিদিনের লেনদেনেও বড় ধরনের ধস নেমেছে। বাজার বিশ্লেষণে দেখা যায়, গতকাল দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক ফের ৪ হাজার পয়েন্টের নিচে নেমে এসেছে। এদিন ডিএসইতে ১৩৫টি প্রতিষ্ঠানের দাম ও সাধারণ সূচক কমেছে ৭ পয়েন্ট। লেনদেন হয়েছে মোট ১২২ কোটি টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। আগের কার্যদিবস রোববার লেনদেন হয়েছিল ১৩৮ কোটি টাকা। সোমবার লেনদেনের প্রথম ৫ মিনিটে অর্থাৎ সকাল ১০টা ৩৫ মিনিটে ডিএসইর সাধারণ সূচক ৫৬ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৪৪ পয়েন্টে নেমে আসে। পরে ১০টা ৪০ মিনিটে ৭৪ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯২৬ পয়েন্টে, পৌনে ১১টায় ৭১ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯২৯ পয়েন্টে, ১১টায় ৪৭ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৫৩ পয়েন্টে, সোয়া ১১টায় ৭০ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৩০ পয়েন্টে, দুপুর ১২টায় ৬৩ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৩৭ পয়েন্টে, পৌনে ১টায় ৩৬ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৬৪ পয়েন্টে, ১টায় ২ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ০৩ পয়েন্টে, ১টা ৩৫ মিনিটে ১৫ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৮৫ পয়েন্টে, ২টায় ১৮ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৮২ পয়েন্টে স্থির হয়। দিন শেষে ডিএসইর সাধারণ সূচক ৭ পয়েন্ট কমে ৩ হাজার ৯৯৪ পয়েন্টে নেমে আসে। এদিন মোট ২৫৭টি কোম্পানির ৩ কোটি ১৬ লাখ ৬৫ হাজার ৫০৫টি শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। ডিএসইতে মোট লেনদেনের পরিমাণ ১২২ কোটি ৯৮ লাখ ৬০ হাজার ২০৩ টাকা। যা আগের দিনের চেয়ে ১৫ কোটি ৩১ লাখ টাকা কম।

পাঠকের মন্তব্য