ঈদকে সামনে রেখে রেমিটেন্স প্রবাহ বাড়ছে
২৮ জুলাই, ২০১২ ১:৩৮ অপরাহ্ণ
-

ঈদকে ঘিরে প্রবাসীদের পাঠানো বৈদেশিক মুদ্রা (রেমিটেন্স) বাড়তে শুরু করেছে। জুলাই মাসের প্রথম ২০ দিনে প্রবাসীরা ৮০ কোটি ডলারের বেশি রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন। মাস শেষে এর পরিমাণ ১২০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। গত মাসে এর পরিমাণ ছিল ১০৭ কোটি ডলার।

অন্যদিকে সপ্তাহের শেষ দিন গত বৃহস্পতিবার কলমানি মার্কেট সিঙ্গেল ডিজিটে রয়েছে (৯ দশমিক ৪৪ রয়েছে)। গত বছরে একই সময়ে এটা ছিল ১১ দশমিক ৯০ শতাংশ। এ হিসেবে চলতি বছরে কলমানি মার্কেট ভালো অবস্থায় রয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, ঈদকে সামনে রেখে প্রতি বছর রেমিটেন্স বাড়ে। স্বজনদের ঈদের প্রয়োজনীয় কেনাকাটা ও রমজানে অতিরিক্ত খরচ বিবেচনায় নিয়ে মাসজুড়ে প্রবাসীরা অতিরিক্ত অর্থ পাঠিয়ে থাকে। রমজানের প্রথম সপ্তাহে অর্থাৎ ১৪ থেকে ২০ জুলাই পর্যন্ত প্রবাসীরা প্রায় ২৯ কোটি ডলার পাঠিয়েছেন। ১ থেকে ১৩ জুলাই পর্যন্ত আসে ৫১ কোটি ডলারের কিছু বেশি। অর্থাৎ ২০ তারিখ পর্যন্ত রেমিটেন্সের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৮০ কোটি ১৪ লাখ ডলার। এ প্রবাহ দেখে জুলাই শেষে মোট রেমিটেন্সের পরিমাণ গত জুন কিংবা আগের বছরের একই সময়ের ছাড়িয়ে যাবে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

জুলাইয়ের প্রথম ২০ দিনে পাঠানো রেমিটেন্সের মধ্যে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন চার বাণিজ্যিক ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ২১ কোটি ৮৫ লাখ ডলার। বিশেষায়িত দুব্যাংকের মাধ্যমে ৮৪ লাখ ডলার। আর বেসরকারি খাতের ৩০টি ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ৫৬ কোটি ৭ লাখ ডলার এবং বিদেশি মালিকানার ৯টি ব্যাংকের মাধ্যমে এসেছে ১ কোটি ৩৬ লাখ ডলার। এবারো রেমিটেন্স প্র্রেরণের দিক থেকে শীর্ষ রয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো। বিশেষ করে সৌদি আরব। গত ২০১১-১২ অর্থবছরে রেমিটেন্স পাঠানোর দিক দিয়ে শীর্ষ ৫ দেশের মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে সৌদি আরব। এ সময়ে রেমিটেন্স এসেছে মোট রেমিটেন্সের ২৮ শতাংশ বা ৩৬৮ কোটি ৪৩ লাখ ৬ হাজার ডলার। এর পরে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত। বাংলাদেশ ব্যাংকের দেশভিত্তিক রেমিটেন্স প্রবাহের প্রতিবেদনে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়মিত এ প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এরপরে কুয়েত ও যুক্তরাজ্য। গত বছর মধ্যপ্রাচ্যের ৮টি দেশ থেকে ৬৫ শতাংশ অর্থাৎ ৮৩২ কোটি ৭৯ লাখ রেমিটেন্স এসেছে। ২০১০-১১ অর্থবছরে এসেছিল ৭২১ কোটি ৫৫ লাখ ডলার। বাকি ৫৫ শতাংশ এসেছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, মালয়েশিয়াসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ থেকে।

২০১১-১২ অর্থবছরে প্রবাসীরা যে পরিমাণ অর্থ দেশে পাঠিয়েছেন আগের অর্থবছরের তুলনায় তা ১১৯ কোটি ৫৭ লাখ ডলার বা ১০ দশমিক ২৬ শতাংশ বেশি ছিল। ২০১০-১১ অর্থবছরে তার আগের বছরের তুলনায় প্রায় ৬ শতাংশ বেশি রেমিটেন্স এসেছিল।

পাঠকের মন্তব্য