শ্রীপুর কবরস্থানের কবর থেকে বের হচ্ছে ধোঁয়ার কুন্ডলী
৩ সেপ্টেম্বর, ২০১২ ১২:০৯ অপরাহ্ণ

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার সীমান্তবর্তী ইসলামপুর ইউনিয়নের শ্রীপুর (বটের পুকুর পার) কবরস্থানের পুরাতন একটি কবর থেকে গত দু’দিন ধরে ধোঁয়ার কুন্ডলী বের হচ্ছে। এ দৃশ্য দেখতে কবরস্থানে ভিড় করছেন শত শত উৎসুক জনতা।

প্রত্যক্ষিদর্শীরা জানান, গত শনিবার বিকাল থেকে শ্রীপুর গ্রামের বটপুকুর কবরস্থানের আকই মিয়ার কবর থেকে ধোঁয়া বের হতে দেখেন। এ সংবাদ সর্বত্র ছড়িয়ে পড়লে গ্রামের লোকজন এ দৃশ্য দেখতে বটপুকুর কবরস্থানে ভিড় করেন। এ সংবাদ পেয়ে শনিবার রাত ৯টায় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সুলেমান মিয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

আলাপকালে স্থানীয় লোকজন জানান, শ্রীপুর গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য মরহুম রফিকুল ইসলামের পুত্র আকই মিয়া পেশায় মাইক্রো চালক ছিল। ঢাকা-কুমিল্লা সড়কে মাইক্রো চালানো অবস্থায় প্রায় ৩ বছর পূর্বে কুমিল্লার দেবিদ্বার এলাকায় তাকে হত্যা করে মাইক্রো ছিনতাই করে নেয় দৃর্বৃত্তরা। দেবিদ্ধার থানা পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে আইনী জটিলতা সম্পন্ন করার পর বেওয়ারিশ হিসাবে তার লাশ দাফন করা হয়। এ সংবাদ পেয়ে আকইর পরিবারের সদস্য ঘটনার ৫-৬ দিন পর দেবিদ্বার গিয়ে লাশ সনাক্ত করে বাড়িতে নিয়ে আসার পর তাকে দাফন করা হয় শ্রীপুর বটপুকুর কবরস্থানে।

পুরাতন কবরটির মাথার অংশ ভেঙ্গে পড়েছে মাস খানেক পূর্বে। ভেঙ্গে পড়া ওই অংশ দিয়ে শনিবার বিকাল থেকে ধোঁয়া বের হতে থাকে বলে স্থানীয় দিলা মিয়া, সায়েদ মিয়া, তওফিকুল ইসলাম জানান।

ইসলামপুর ইউপির সাবেক সদস্য মোঃ সবুজুর রহমান জানান, শনিবার বেলা প্রায় ৩ টায় কবর স্থানের পাশে গরু চরানোর সময় এক রাখাল উক্ত কবর স্থান থেকে ধুঁয়া বের হতে দেখে। খবর পেয়ে আশেপাশের লোকজন কবরস্থানে গিয়ে কুন্ডলী আকারে ধুঁয়া উড়তে দেখেন। ধুঁয়া বের হওয়ার খবর মুহূর্তেই গোটা কমলগঞ্জ ছড়িয়ে পড়ে।

একই ইউনিয়নের উত্তর কানাই দেশী গ্রামের সাইফুর রহমান সায়েল বলেন, তিনি ভানুগাছ থেকে রাত্রে শ্রীপুর বটের পুকুরপাড় কবরস্থান সংলগ্ন রাস্তা দিয়ে বাড়ীতে ফেরার সময় রাত ৯ টায় তিনি কবরস্থানে প্রচুর মানুষের কন্ঠে আমিন! আমিন! শব্দ শুনে কাছে গিয়ে দেখেন ধুঁয়া উঠা কবর ঘিরে মানুষ জিয়ারত শেষে মোনাজাত করছেন। তিনিও এই বিস্ময়কর ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করেন।

এলাকার বয়োজৈষ্ঠ ধর্মপ্রাণ মানুষজন এ ঘটনাকে দুনিয়ার মানুষের প্রতি মহান আল্লাহ পাক রাব্বুল আলআমিনের সতর্কবাণী বলে মনে করছেন।

মৌলভীবাজার টাউন সিনিয়র কামিল মাদ্রাসার উপাধ্যক্ষ ও মৌলভীবাজার কোর্ট জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুফতি শামসুল ইসলামের সাথে আলাপকালে জানা যায়, মৃত্যুর পরে গোর আজাব হয় যা দৃশ্যমান নয়। তবে এ ধরনের ঘটনায় মানুষের প্রতি আল্লাহ পাকের কোন একটি দৃষ্টান্তও হতে পারে।

পাঠকের মন্তব্য