আরো যুক্তরাষ্ট্র বিরোধী বিক্ষোভঃ ইসলাম বিরোধী চলচ্চিত্র নিয়ে
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১২ ৮:২৯ পূর্বাহ্ণvoa
AP - A group of Kenyan Muslims burn the U.S. flag following afternoon prayers outside the Sakina Jamia Mosque in the port city of Mombasa, Sept. 14, 2012.-

মুসলিম বিশ্বে ইন্টারনেটে পোষ্ট করা ইসলাম বিরোধী ভিডিওটির বিরুদ্ধে শুক্রবার নতুন করে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।
সাম্প্রতিকতম বিক্ষোভ হয় তিউনিশিয়ার রাজধানী তিউনিসে। বিক্ষোভকারীরা পাথর নিক্ষেপ করলে  পুলিশ তাদের লক্ষ্য করে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে।

মধ্যপ্রাচ্য, দক্ষিণ ও পূর্ব এশিয়া এবং আফ্রিকায় শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর হযরত মুহাম্মস (সাঃ)কে ব্যাংগ করে নির্মিত চলচ্চিত্র সম্পর্কে আলোচনা হয়।  গত চারদিন ধরে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ চলছে এবং অনেক বিক্ষোভকারীরা মনে করে যে ঐ ধরণের ভিডিও চিত্র তৈরী না করার জন্য যথেষ্ট পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ জাহাজ লিবিয়ার সমুদ্র উপকূলের আভিমুখে রয়েছে। ইয়েমেনে বৃহসপতিবার আমেরিকার দূতাবাসের ঘেরাও করা হয়। দূতাবাসের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য সেখানে অতিরিক্ত মেরিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।
সুদানে  অবস্থিত জার্মান  দূতাবাসে বিক্ষোভকারীরা শুক্রবার হামলা চালিয়ে ভাংচুর করেছে। বিক্ষোভকারীরা সেখানে ইসলামিক পতাকা উড়িয়াদেয় এবং দূতাবাসে্র বাইরে আগুন ধরিয়ে দেয়।

খারতুম থেকে পাঠানো একটি ভিডিও চিত্রে দেখা যায়, ভবনের ওপরে কালো ধোঁয়া দেখা যায় এবং  বিক্ষোভকারীদের শ্লোগান দিতে দেখা যাচ্ছে।  জার্মান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে যে দূতাবাসের সকল কর্মী নিরাপদের আছেন।

আমেরিকা এবং বিদেশী মিশনগুলোতে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে মংগলবারের আক্রমনের পর।
মালয়েশিয়া এবং ইন্দোনেশিয়াতেও বিক্ষোভ হয় এবং আফগানিস্থানের কাবুলে  নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।
যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ জাহাজ লিবিয়ার সমুদ্র উপকূলের আভিমুখে রয়েছে। ইয়েমেনে বৃহসপতিবার আমেরিকার দূতাবাসের ঘেরাও করা হয়। দূতাবাসের নিরাপত্তা রক্ষার জন্য সেখানে অতিরিক্ত মেরিন সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য