এইচআরটি মহিলাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমায়
১৩ অক্টোবর, ২০১২ ৯:০৪ পূর্বাহ্ণ
-

একটা বিশেষ বয়সে এসে মহিলাদের হরমোন সংক্রান্ত জটিলতা দেখা দেয়। দেহ বিশেষ কিছু হরমোন তৈরি বন্ধ করে দেয়। এতে মহিলাদের হট ফ্ল্যাশ নামে পরিচিত উপসর্গ অর্থাত গা বা মাথা-কান গরম হয়ে ওঠে, বন্ধ হয়ে যায় ঋতুস্রাব এবং দেখা দেয় আরো কিছু সমস্যা।  এ সমস্যা কাটিয়ে ওঠার জন্য 'হরমোন রিপ্লেসমেন্ট থেরাপি' বা এইচআরটি নামে পরিচিত চিকিতসা গ্রহণ করেন অনেকে। দেহ যে হরমোন তৈরি বন্ধ করে দেয় তার যোগান দেয়া হয় এইচআরটির মাধ্যমে। সাম্প্রতিক এক চিকিতসা জরিপে দেখা গেছে, এইচআরটি মহিলাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমায়।

তবে এইচআরটি নেয়ার বিষয়ে সতর্ক হতে বলেন বিশেষজ্ঞরা। দীর্ঘ মেয়াদে এ ধরণের চিকিতসা চালিয়ে যাওয়ার অনুমতি দেন না তারা। হৃদযন্ত্রের ওপর এইআরটি'র সুপ্রভাবের কথা জানার পরও সে সতর্কতায় ঢিলেমি করতে মোটেও রাজি হননি চিকিতসা বিশেষজ্ঞরা। তারা এখনো বলছেন, দীর্ঘদিন এইচআরটি চালানো ঠিক হবে না।

এইচআরটি নিয়ে ব্রিটিশ মেডিক্যাল জার্নাল বা বিএমজে'তে প্রকাশিত গবেষণা-নিবন্ধে আরো বলা হয়েছে, এ চিকিতসা গ্রহণের সঙ্গে ক্যান্সার বা স্ট্রোক হওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই। অবশ্য আগের অনেক গবেষণায় এইচআরটি'র সঙ্গে এ সব রোগের সম্পর্কের কথা বলা হয়েছে।

এইচআরটি নিয়ে নতুন গবেষণা চালানো হয় ১,০০০ নারীর ওপর। তাদের মধ্যে অর্ধেকই এইচআরটি গ্রহণ করেছেন। ১০ বছর ধরে চালানো এ গবেষণায় দেখা গেছে,এইচআরটি গ্রহণের ফলে এসব নারীর ক্যান্সার, ডিপ ভেইন থ্রম্বোসিস বা শিরায় রক্ত জমাট বাঁধা এবং স্ট্রোকের মতো ঘটনা বাড়েনি। কিন্তু তাদের মৃত্যুহার কমেছে,কমেছে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা।

তবে গবেষক দলটি মনে করছেন, ফলাফল সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার জন্য এইচআরটি নিয়ে আরো গবেষণা চালানো উচিত।

পাঠকের মন্তব্য