জলসীমা নিয়ে বিরোধের মাঝে চীনা নৌমহড়া
২১ অক্টোবর, ২০১২ ১১:০০ অপরাহ্ণ
-

পূর্ব চীন সাগরে সমুদ্রসীমা নিয়ে চীন ওজাপানের মধ্যে যে বিরোধ আছে, তাতে জাপানকে একটা স্পষ্ট সতর্কতার বার্তা দিয়ে চীন সেখানে নৌবাহিনীর মহড়া শুরু করেছে। ঐ অঞ্চলে যে বিতর্কিত দ্বীপটির মালিকানা নিয়ে দু'দেশের মধ্যে সংঘাত চলছে, তার আশেপাশে চীনা বাণিজ্যিক জাহাজগুলোকে ইদানীং বিদেশী জলযানগুলো হেনস্থা করছে বলে চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত্ব সংবাদমাধ্যমে এর আগে অভিযোগ তোলা হয়।

আজকের নৌমহড়ায় অন্তত ১১টি রণতরীর সাথে সামিল হয়েছে যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার। চীন, জাপান এবং তাইওয়ান এইতিনটি দেশই এই বিরোধপূর্ন দ্বীপের মালিকানার দাবিদার। দ্বীপটি জাপানে পরিচিত সেনকাকু নামে এবং চীনে এর নাম দিয়াওইয়ু।

জাপানের ওকিনাওয়া দ্বীপেরদক্ষিণে এবং তাইওয়ানের উত্তরে অবস্থিত এই দ্বীপের বর্তমান দখল জাপানের হাতে। কিন্তু জাপানী সরকার সম্প্রতি এই এলাকার তিনটি দ্বীপ বেসরকারি জাপানী মালিকদের কাছ থেকে কিনে নেয়ার পর এর মালিকানা নিয়েকূটনৈতিক বিরোধ তুঙ্গে ওঠে। চীনের মূল ভূখন্ডে জাপান-বিরোধী বিক্ষোভও দেখানো।

দ্বীপগুলোর আশেপাশের জলসীমায় চীনা এবং তাইওয়ানী জাহাজ ঘোরাফেরা শুরু করার পর জাপানের সরকারের তরফ থেকে সতর্ক করে বলা হয় এ নিয়ে দুর্ঘটনাবশত কোন সংঘাত দেখা দিলে পরিস্থিতি আরও শোচনীয় হবে।

চীন ও জাপানের মধ্যে এই দ্বীপ নিয়ে কূটনৈতিক বিরোধের প্রভাব পড়েছে অর্থনীতির ওপরও। দু’দেশের পর্যটকরা তাদের সফর বাতিল করেছেন এবং চীনেবিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর সেখানে জাপানী কারখানাগুলো উৎপাদন বন্ধ করেছে।

টোকিও থেকে বিবিসি সংবাদদাতা রুপার্ট উইংফিল্ড-হেইস এর বদৌলতে জানা গেছে,সামরিক মহড়ায় অংশ নেয়া ১১টি চীনা জাহাজ জাপানের জলসীমায় প্রবেশ করবে না বলেই মনে করা হচ্ছে। কিন্তু যদি সেটা ঘটে তাহলেসংকট আরও ঘনীভূত হবে বলে তিনি মনে করেছেন।

পাঠকের মন্তব্য