চুমুর অনুভূতি বিনিময় করতে পারে মোবাইল
১১ সেপ্টেম্বর, ২০১১ ৩:৪৬ অপরাহ্ণটাইমস অফ ইন্ডিয়া-এর।

সম্প্রতি জার্মানির গবেষকরা দাবি করেছেন, তারা ‘কিসিং মোবাইল’ বা ‘চুমু ফোন’সহ অনুভূতিবাহক একাধিক ফোন তৈরি করেছেন। গবেষকদের দাবি, নতুন এই মোবাইল ফোন যে কোনো অনুভূতি এবং চুমুর মতো স্পর্শকাতর অনুভূতিও সঞ্চার করতে পারে।

গবেষক হেমার্ট কিসিং মোবাইল ফোন তৈরি প্রসঙ্গে জানিয়েছেন, ‘আমাদের অনুভূতি ক্ষমতার ক্ষুদ্র অংশ ব্যবহার করতে পারে মোবাইল ফোন। মোবাইল ফোন টেক্সট, ভিডিও এবং কথার মতো তথ্য প্রেরণের জন্য মোবাইল দক্ষ মাধ্যম হলেও আমাদের মধ্যে এটি প্রিয়জনের সান্নিধ্য এনে দিতে পারে না।’আঁকড়ে ধরা বা জড়িয়ে ধরার অনুভূতি তৈরি করতে সক্ষম এমন মোবাইলের দুই পাশে ব্যবহৃত হয়েছে ফোর্স সেন্সর এবং হাতের ওপরে ব্যবহারের জন্য একটি কোমল ফিতা। যখন এ ফোনটি ব্যবহার করা হবে তখন ফোনে ব্যবহৃত একটি মোটর ফিতাটিকে শক্ত করে আটকে ধরে জড়িয়ে ধরার অনুভুতি এনে দিতে পারে।প্রিয়জনের শ্বাস নেবার অনুভ’তি এনে দিতে পারে এমন প্রটোটাইপ মোবাইল ফোনে রয়েছে  প্রেসার সেন্সর এবং জেট সেন্সর। কথা বলার সময় বাতাসের নড়াচড়া বা স্পর্শ করার মতো অনুভূতিগুলো এসব সেন্সর সঞ্চারিত করতে পারে।

কিসিং প্রটোটাইপ বা চুমু ফোনটিতে ব্যবহৃত হয়েছে ময়েশ্চার সেন্সর এবং মটোরাইজড ওয়েট স্পঞ্জ। যখন কোনো ফোন থেকে চুমু দেয়া হয় তখন অন্যপ্রান্তে একই রকম মেমব্রেন চুমুর অনুভূতি এনে দেবে। এক্ষেত্রে যতোখানি গাঢ় হবে ততোই বেশি অনুভূতি সঞ্চার করবে।

পাঠকের মন্তব্য